শুক্রবার, ১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে জুয়া খেলায় সংঘর্ষে আহত ২

বিশেষ প্রতিনিধি (শাহরাস্তি)চাঁদপুর 


চাঁদপুরের শাহরাস্তিতে জুয়া খেলায় বাঁধা দেয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে উভয় পক্ষের ২ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

১০ মার্চ (শুক্রবার) রাতে উপজেলার টামটা দক্ষিণ ইউনিয়নের শংকরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, ওই গ্রামের আঃ রাজ্জাক গংয়ের পারিবারিক কবরস্থানের পাশে স্থানীয় কতিপয় যুবক জুয়া খেলছিলো। ওই সময় জুয়া খেলা বন্ধের উদ্দেশ্যে শংকরপুর সর্দার বাড়ির আবুল বাসার সর্দারের পুত্র ফরিদ সর্দার এলাকার যুবকদের নিয়ে তাদের বাঁধা দিতে যায়। ঘটনার এক পর্যায়ে এলাকাবাসী ও জুয়াড়িদের সংঘর্ষ বাঁধে। এতে ফরিদ সর্দার (৩৮) ও ওই গ্রামের মৃত আবদুল আঊয়ালের পুত্র আঃ জলিল (৪০) আহত হয়।

আহত ফরিদ সর্দার জানান, তিনি এলাকার যুবকদের নিয়ে জুয়াড়িদের খেলা বন্ধ করতে যান। ওই সময় আঃ জলিল, মৃত আঃ হাইয়ের পুত্র মোঃ শরিফ (৩০), মাসুদ আলমের পুত্র মোঃ ফারুক (৩৫), মৃত নুরুল ইসলামের পুত্র মোঃ সহিদ (৩৫) সহ অজ্ঞাতনামা ২/৩ জন জুয়াড়ি তাকে বেধড়ক মারধর করে তার বাম চোখের উপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে।এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে শাহরাস্তি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

অভিযুক্ত আঃ জলিলের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জুয়া খেলার সাথে যুক্ত ছিলেন না বলে জানান। কবরস্থানের পাশে জুয়া খেলারত যুবকদের ধাওয়া দিয়ে ফরিদ সর্দার তাকে একা পেয়ে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দেয়।২/৩ দিন পূর্বে অজ্ঞাত চোর তার বোনের ঘর থেকে স্বর্ণালংকার ও টাকা পয়সা নিয়ে যায়।

ওই গ্রামের মৃত আঃ রবের পুত্র আঃ রাজ্জাক জানান, এটি আমাদের পারিবারিক কবরস্থান। স্থানীয় কিছু যুবক গত ৪/৫ বছর যাবত এখানে জুয়া খেলে আসছে। তাদের শত বাঁধা দেয়ার পরও কোন কাজ হয়নি।

ওই গ্রামের মাসুদ আলমের পুত্র ফারুক হোসেন জানান, ফরিদ সর্দার তার লোকজন নিয়ে এসে আকস্মিক খেলারত লোকদের মারধর শুরু করে।

 

স্থানীয় মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ মিজানুর রহমান জানান, এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে জুয়া খেলা চলছে। তাদের নিষেধ করলেও কোন কর্ণপাত করে না। মাঝে মধ্যে ফরিদ এলাকায় এসে তাদের বাধা দেয়ার চেষ্টা করে।

এলাকার বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী খোরশেদ আলম জানান, জুয়াড়িদের কারণে এলাকার উঠতি যুবকরা নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তারা কেউ ভয়ে বাঁধা দিতে চায় না। ফরিদ তাদের বাঁধা দিতে গিয়ে হামলার শিকার হয়ে গুরুতর আহত হয়েছে। এ বিষয়ে আইন শৃংখলা বাহিনীর তৎপরতা বাড়ালে এলাকার পরিবেশ রক্ষা পাবে।

এ বিষয়ে শাহরাস্তি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ শহিদ হোসেন জানান, এ ঘটনায় ফরিদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে মামলা রুজু করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Comments are closed.

More News Of This Category