শুক্রবার, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মালয়েশিয়ায় বেঙ্গলী এসোসিয়েশনের উদ্যেগে শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন

কায়সার হামিদ হান্নান,মালয়েশিয়া থেকে 


প্রতি বছরের মতো এবার ও মালয়েশিয়ায় যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপিত হয়েছে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা।
কুয়ালালামপুরের পেতালিং জায়া উইসমা পেলাডাং মিলনায়তনে সপ্তাহব্যাপী এ দুর্গোৎসবের আয়োজন করে মালয়েশিয়ান বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশন।

উৎসবে দুই বাংলার প্রবাসীদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মত। ঢাকা, চট্টগ্রাম, কলকাতা, মেদিনীপুরের বাঙালি ছাড়াও বাঙালি বংশোদ্ভূত মালয়েশিয়ান নাগরিকরা উদযাপন করেন এ উৎসব।



প্রণয় কুমার চৌধুরী অংশু জানান, মালয়েশিয়ান বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশনের উদ্দেশ  শুধু বছরের কয়েকটি দিন বাঙালিদের একত্রিত করা নয়। প্রবাসী বাঙালিদের অন্তরে বাংলা সংস্কৃতি ধরে রাখা এবং নতুন প্রজন্মের সঙ্গে তার পরিচয় করিয়ে দেওয়া।
প্রতিদিনই পূজামণ্ডপে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত ভক্তদের প্রার্থনা ও নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন চলে।

দুর্গাপূজায় মণ্ডপগুলোতে মহালয়া, দেবী বোধন ও শ্রী শ্রী দুর্গাষষ্ঠী, মহাসপ্তমী, মহাঅষ্টমী, মহানবমী, বিজয়া দশমী ও শ্রী শ্রী লক্ষ্মী পূজা অনুষ্ঠিত হয়। নবমী তিথিতে যথাবিহিত পূজা অর্চনার পর বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিজর্সনের মধ্য দিয়ে দুর্গোৎসবের সমাপ্তি ঘটে।



নানা আয়োজনের মধ্যে নব প্রজন্মের কাছে বাংলার সংস্কৃতি, জাতীয় সত্তাকে তুলে ধরতে নানাভাবে সজ্জিত করেছে পূজামণ্ডব।
মালয়েশিয়ান বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশন প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৫২ সালে। এরপর থেকেই প্রতি বছর দুর্গাপুজা, কালীপূজাসহ রবীন্দ্রজয়ন্তী, পহেলা বৈশাখের মত উৎসবের আয়োজন করে আসছে মালয়েশিয়ান বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশন।
রিদম গ্রুপের মাতৃরূপেন অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন তিথি চট্ট্রপাধ্যায় এবং রেশমি রায় । সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন কৃতি কোচাল ,সৌমি মিত্রা ,সুহানি মিত্রা , দৃষ্টি চক্রবর্তী ,
সাতোয়াটি গোশ ,আরনিসা মুখার্জি ,পৃথা মজুমদার ,প্রানায়া মজুমদার ,শুভ্রা সাহা ,প্রমুগ্ধা চৌধুরী ,সুচিমিতা দাশ ,আলিভা মুখার্জি ,ঐশী চক্রবর্তী ,জায়াটি সিং মুখার্জি ,শায়না মুখার্জি ,তানিমা বোরাল সহ আরো অনেকে।
আর এই দুর্গাপূজা অনুষ্ঠান সফল করতে অক্লান্তভাবে পরিশ্রম করে যাওয়া অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সুজিত গোশ ও সাস্কৃতিক সম্পাদক সুবাশিষ রায় চৌধুরী আয়োজক কমিটির সকলকে ধন্যবাদ জানান তারা ।

Comments are closed.

More News Of This Category