শুক্রবার, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহরাস্তিতে কথিত ‘সংবাদকর্মী’র বিরুদ্ধে পর্ণগ্রাফি ও চাঁদাবাজি মামলা

 

বিশেষ প্রতিনিধি,চাঁদপুর


সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে অশ্লীল
ছবি ও ভিডিও ধারণ করে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও প্রচারের হুমকি দিয়ে মোটা অংকের চাঁদা দাবী করায় শাহরাস্তি উপজেলার কথিত ‘সংবাদকর্মী’ রাফিউ হাসান হামজার বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি ও চাঁদাবাজি আইনে মামলা করা হয়েছে।

গত ১২ ই মে ২০২৪ ইং এ বিষয়ে শাহরাস্তি মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন উপজেলার টামটা উত্তর ইউনিয়নের সেতরা খাঁন বাড়ীর শাহজাহান খানের কন্যা ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ২০২৪, এ ফুটবল প্রতিকের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হনুফা আক্তার মৌসুমী (২৮)।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন শাহরাস্তি পৌরসভাধীন নিজমেহার গ্রামের হুমায়ুন কবিরের পুত্র রাফিউ হাসান হামজা (৩৫), ও কুমিল্লা জেলার লালমাই উপজেলার জগৎপুর গ্রামের আমিনুল হকের পুত্র মো: ইজাজুল হক (৩২) সহ অজ্ঞাতনামা কয়েকজন আসামি। অভিযুক্ত ইজাজুল হকের নামে নারী নির্যাতন, মাদক, ধর্ষণের আরো চারটি মামলা রয়েছে।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ইজাজুল হক ও রাফিউ হাসান হামজার যোগসাজশে ভিকটিম হনুফা আক্তার মৌসুমীর ছবি দিয়ে কাটপিস অশ্লীল ছবি ও পর্নোভিডিও তৈরি করে অভিযুক্তরা। অভিযুক্তরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ৫ টি ফেইক আইডি খুলে তা প্রচার করে আসছিল। অভিযুক্ত আসামীরা উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হনুফা আক্তার মৌসুমীর ছবি ও ফুটবল প্রতিক সম্বলিত পোস্টারের সাথে কাটপিস অশ্লীল ছবি ও পর্নোগ্রাফি ভিডিও তৈরি করে তা প্রচার ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে প্রচার করে। এসময় অভিযুক্তরা ভিকটিম হনুফা আক্তার মৌসুমীর ম্যাসেন্জার, ইমো, হোয়াটঅ্যাপস, ছবি ভিডিওগুলো পাঠিয়ে ভয়ভীতি ও হুমকি ধমকী প্রদর্শন করে। ভিকটিম অভিযুক্তদের ফেসবুক থেকে কাটপিস অশ্লীল ছবি ও ভিডিওগুলো সরানোর জন্য অনুরোধ জানিয়ে আসছিলেন। অভিযুক্তরা ফেসবুক থেকে ছবি ও ভিডিও গুলো সরানোর জন্য ভিকটিম হনুফা আক্তার মৌসুমীর কাছ থেকে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে আসছিল। ভিকটিম হনুফা আক্তার মৌসুমী নিজের আত্মসম্মান, সামাজিক ও রাজনৈতিক অবস্থার কথা চিন্তা করে শাহরাস্তি মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। মামলা নং ০৮, তাং ১২/৫/২০২৪ ইং। ধারা ৮(১),৮ (২)৮(৩)৮ (৫), (ক.) পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন ২০১২, তৎসহ ৩৮৫, দি প্যানেল কোড ১৮৬০, পর্নোগ্রাফি প্রস্তুত করিয়া ইন্টারনেট তথা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম প্রকাশ ও সরবরাহ করত মানসিকভাবে নির্যাতন ও মর্যাদাহানী ঘটাইবার ও চাঁদাদাবী করিবার অপরাধে এ মামলা দায়ের করা হয়।

উল্লেখ্য, কথিত সংবাদকর্মী পরিচয়ে রাফিউ হাসান হামজা প্রবাসীর স্ত্রীদের সাথে কাটপিস অশ্লীল ছবি ভিডিও তৈরি করে ব্ল‍্যাকমেইল করে লাখ লাখ টাকা চাঁদা আত্মসাৎ, মানবিক সংগঠনের মুখোশের আড়ালে দরিদ্র অসহায় মানুষের জন্য লাখ লাখ টাকা চাঁদা তুলে আত্মসাৎ এর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ ও মামলা রয়েছে।

Comments are closed.

More News Of This Category